• শিরোনাম

    নাসিরনগরে অস্তিত্ব নেই সরকারি খাল ভরাট ও পানিবন্দী ২০০ পরিবারের

    চিনাইরবার্তা.কম মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগরঃ | সোমবার, ১৫ জুন ২০২০

    নাসিরনগরে অস্তিত্ব নেই সরকারি খাল ভরাট ও পানিবন্দী ২০০ পরিবারের

    জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের কান্দি গ্রামে সরকারি খাল ভরাট করায় পানিবন্দী ২০০ পরিবার শিরোনামে বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের কোন অস্তিত্ব নেই বলে দাবী করেন স্থানীয় চেয়ারম্যান রুবেল মিয়া, এডভোকেট মাজহারুল আনোয়ার মেরাজ সহ এলাকার স্থানীয়রা।
    ১৩ জুন ২০২০ দৈনিক মানবজমিন, ইত্তেফাক ও সমকাল পত্রিকায় নাসিরনগরে সরকারী খাল ভরাট, পানিবন্দী ২০০ পরিবার সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বারের সদস্য এডঃ মাজহারুল আনোয়ার মেরাজ ১৪ জুন মিথ্যা অভিযোগ দায়ের প্রসঙ্গে নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

    smart

    অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিন এলাকায় গিয়ে এলাকাবাসী,প্রত্যক্ষদর্শী, অভিযোগকারী, স্থানীয় চেয়ারম্যানের সাথে কথা বললে, তারা জানান প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। এডঃ মাজহারুল আনেয়ার মেরাজ বলেন, দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার নাসিরনগর উপজেলা প্রতিনিধি সাবেক উপজেলা বিএনপি যগ্ন সাধারণ সম্পাদক, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে মোঃ আজিজুর রহমান চৌধুরী এলাকার আওয়ামীলীগ পšী’ কিছু লোকের নামে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আমি একজন এডঃ হিসেবে আসামীদের পক্ষ নিয়ে আদালতে লড়াই করে মিথ্যা মামলা থেকে আসামীদের খালাস করতে সক্ষম হই। পরবর্তীতে মিথ্যা মামলা দায়েরের কারণে বাদী আজিজুর রহমান চৌধুরীকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করি। সেই সময় তিনি বেশ কিছু দিন জেল হাজতে ছিলেন। বর্তমানে আজিজুর রহমান চৌধুরী পূর্বের আক্রোশের জের ধরে তার ফুফাতো ভাই দৈনিক ইত্তেফাকের নাসিরনগর উপজেলা প্রতিনিধি আক্তার হোসেন ভূইয়া ও তাদের সহযোগী দৈনিক সমকাল পত্রিকার প্রতিনিধি মুরাদ মৃধাকে নিয়ে আমার নামে মান হানিকর মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে।

    এ বিষয়য়ে উল্লেখিত ৩িন সাংবাদিকের সাথে কথা বললে, তারা বলেন জসিম উদ্দিনের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে সংবাদ প্রেরণ করা হয়। পরবর্তীতে তারা উল্লেখিত সংবাদের জন্য ফলোআপ নিউজ অথবা প্রতিবাদ সংবাদ প্রকাশ করা হবে বলে জানায়।

    এ বিষয়ে ভলাকুট ইউপি চেয়ারম্যান রুবেল মিয়া, ইউপি সদস্য লিটন মিয়া, ভূক্তভোগী এডঃ মাজহারুল আনোয়ার মেরাজ সহ উপস্থিত স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে কথা বললে তারা জানায় তাদের সংবাদে উল্লেখিত জায়গা কোন সরকারি খাল নেই। তাছাড়াও তাদের সংবাদে অন্য জায়গার ছবি সংযুক্ত করা হয়েছে যা, সম্পূর্ণ মনগড়া ও ভিত্তিহীন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে চিনাইরবার্তা.কম